দুপচাঁচিয়ায় ঝগড়া-বিবাদ ঠেকাতে গিয়ে যুবক ছুরিকাঘাত, বাবাও মারপিটের শিকার

প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৩, ২০২২

ফিরোজ হোসেন দুপচাঁচিয়া (বগুড়া) প্রতিনিধি :
গত ২২ আগস্ট  সোমবার দিনগত রাতে দুপচাঁচিয়া উপজেলায় আটগ্রাম বেলহালী গ্রামে দু’পক্ষের ঝগড়া বিবাদ ঠেকাতে গিয়ে শেখ ফরিদ (২৩) নামের এক যুবক ছুরিকাঘাত হয়েছে। বর্তমানে সে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকালে আহত ছেলেকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে যাওয়ার পথে বাবাও মারপিটের শিকার হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার চামরুল ইউনিয়নের আটগ্রাম বেলহালী গ্রামে গত সোমবার সকালে রেজাউল সরদার (৫৫) এর সাথে প্রতিবেশি গুলজার সরদারের তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বিবাদের সৃষ্টি হয়। উভয়ের মাঝে কথা কাটাকাটি থেকে হাতাহাতির ঘটনা ঘটার সময় একই গ্রামের ইব্রাহিম মন্ডলের ছেলে শেখ ফরিদ উভয়ের মাঝে গিয়ে তাদের ঝগড়া বিবাদ ঠেকানোর চেষ্টা করে এবং উভয়কে দু’দিকে সরিয়ে দেয়। এরই জের ধরে ঘটনার দিন গত সোমবার রাত সাড়ে ৯টায় শেখ ফরিদ বাড়ির সামনের রাস্তায় হাটাহাটি করার সময় রেজাউল সরদার ও তার ছেলে রাব্বী সরদার ও একই গ্রামের সৈকত (১৯) সহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন তার পথ রোধ করে এবং শেখ ফরিদকে এলোপাথারি মারপিট করে। এক পর্যায়ে মাথায় ছুরিকাঘাত করে। এ সময় শেখ ফরিদ মাটিতে পড়ে গিয়ে চিৎকার করলে তারা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন রাতেই শেখ ফরিদকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ইব্রাহিম মন্ডল তার ছেলে শেখ ফরিদকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখতে আসার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়। সে হামলাকারীদের বাড়ির সামনে পৌছিলে হামলাকারীরা তার বাবাকেও এলোপাথারি ভাবে মারপিট করে দুই পায়ে যক্ষম করেছে। এ বিষয়ে শেখ ফরিদ নিজেই বাদী হয়ে তিন জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো দুই-তিন জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।