চারঘাটে কারেন্ট জালে আটকে মারা গেল ডলফিন

চারঘাট প্রতিনিধি : রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বড়াল নদীতে ঢুকে পড়ে ডিটারিয়া বর্গের ডিলপিনিডি পরিবারভুক্ত একটি ডলফিন। নদী পার হতে গিয়ে আটকা পড়ে জেলেদের পাতা কারেন্ট জালে। এতে ডলফিনটি মারা যায়।

জানা যায়, আজ বৃহস্পতিবার ভোরে বড়াল নদীর কালুহাটি ব্রীজ সংলগ্ন ঘাটের কাছে ডলফিনটি শ্রী পলাশ কুমার নামের এক জেলের কারেন্ট জালে আটকা পড়ে মারা যায়। পলাশের বাড়ি পার্শ্ববর্তী বাঘা থানার আড়ানীতে। পলাশ ও তার সহযোগী জেলেরা সকাল ৭ টার দিকে ডলফিনটিকে বিক্রির উদ্দেশ্যে আড়ানী বাজারে নিয়ে আসে।

ঘন্টা খানেক আড়ানী বাজারে রেখে তারা ডলফিনটিকে সেখান থেকে সরিয়ে নেয়। ধারণা করা হচ্ছে, জেলেরা এটিকে অন্যত্র বিক্রি করে দিয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মৃত ডলফিনটিকে উদ্ধার করা বা এর সঙ্গে জড়িত কাউকে পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানায়, একসময় বড়াল নদীতে অনেক শুশুক দেখা যেত। জেলেরা এসব শুশুক ধরতে পারলে তা বাজারে নিয়ে বিক্রি করত। কারণ শুশুক ও ডলফিনের তেল ও হাড়গোড় দিয়ে ওষুধ তৈরি করা হতো বলে ওই সময় একটি চক্র মৃত শুশুক ও ডলফিন চড়া দামে জেলেদের কাছ থেকে কিনে নিত।

কয়েক বছর থেকে এ নদীতে শুশুক কিংবা ডলফিনের দেখা পায়নি জেলেরা। প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের এক সহযোগী অধ্যাপক প্রাণীটির ছবি দেখে বলেন, এটি ডিটারিয়া বর্গের ডিলপিনিডি পরিবারভুক্ত ডলফিন।

এর ইংরেজি নাম Gangetic River Dolphin বৈজ্ঞানিক নাম Platanista gangetica.এর চোয়ালের উভয় পাশে রয়েছে ২৮টি দাঁত। গায়ের রং সিসা বা চকচকে কালো হতে পারে।

তিনি জানান, ডলফিনের বেশ কিছু প্রজাতি পৃথিবী থেকে প্রায় বিলুপ্ত হতে চলেছে। আগে আমাদের দেশে নদী ও সমুদ্রে আট প্রজাতির ডলফিন দেখা যেত। একসময় উত্তরাঞ্চলসহ দেশের সব নদীতে ডলফিন দেখা যেত।বিপদাপন্ন প্রাণী হিসেবে ডলফিন রক্ষায় কারেন্ট জালের ব্যবহার সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

চারঘাট সিনিয়র উপজেলা মৎস কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বলেন, কারেন্ট জালে ডলফিন ধরা পড়ার ঘটনাটি আমার জানা নেই। আমি এখনই বিষয়টার খোঁজ নেবো। আর বিলুপ্তি প্রায় জলজ প্রাণীগুলো রক্ষার্থে কারেন্ট জালের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলমান আছে।              

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *